ফরেক্স ট্রেডিং সংক্রান্ত কিছু অপ্রিয় সত্য !

0
851
Forex Trading Fact
Forex Trading Fact
- ফ্রি অনলাইন ট্রেনিং -

অনেকেই অনেক ধরণের আশা কিংবা স্বপ্ন নিয়ে ফরেক্স ট্রেডিং শুরু করে থাকেন। এই পর্যন্ত যারা আমাদের কাছে সহায়তার জন্য এসেছেন কিংবা ট্রেড শিখার আগ্রহ দেখিয়েছেন তাদের মধ্যে বেশীরভাগই হচ্ছে – না বুঝে ট্রেড করার জন্য এসেছেন এই রকম। আমরা সবসময়ই চেষ্টা করি, আপনাদের সঠিক পথ নির্দেশনা প্রদান করার। এই নির্দেশনা প্রদানের জন্যই আমাদের আজকের আর্টিকেল – “Forex Trading Fact”

কিছু অপ্রিয় সত্য যা একজন নতুন হিসাবে আপনার অবশ্যই জানতে হবে ট্রেড করতে হলে। যদি আপনার মনে হয়, আপনি নিজেকে একজন ট্রেডার হিসাবে দেখতে চান তাহলে অবশ্যই আমাদের এই আর্টিকেলটি মনোযোগ সহকারে পড়ুন।

Forex Trading Fact

  • সর্বপ্রথম বিষয়টি হচ্ছে ঝুঁকি। ফরেক্স ট্রেডিং অনেক বেশী পরিমাণ ঝুঁকিপূর্ণ একটি বিনিয়োগ মাধ্যম। আপনি যদি এই ঝুঁকি সম্পর্কে জানেন কিংবা বোঝেন তাহলেই ফরেক্স ট্রেড শিখতে পারেন। আমরা সবাইকে পরামর্শ দেই, ট্রেড করার আগে কমপক্ষে আমাদের এই “Risk Warning” আর্টিকেলটি ভালো করে পড়ুন।
  • ফরেক্স ট্রেডিং কোনও টাকা উপার্জনের মেশিন নয়। এখানে অর্থ উপার্জন বলতে আমরা বোঝাতে চেয়েছি, shortcut শব্দটি। আপনি যদি মনে করেন, ফরেক্স ট্রেড থেকে খুব কম সময়ে খুব বেশী প্রফিট করার যায় তাহলে বলবো আপনি বোকার স্বর্গে বসবাস করছেন। ফরেক্স ট্রেডিং থেকে যদি এত সহজেই প্রফিট করা যেত তাহলে বাংলাদেশে প্রায় ২৫ লক্ষ বেকার থাকতো না!
  • পর্যাপ্ত জ্ঞান এর অভাব! আপনার কি মনে হচ্ছে, আপনি নিজে ফরেক্স মার্কেট সম্পর্কে কতটুকু জানেন? নিজেকেই প্রশ্ন করুন! এখানে শিখার কোনও শেষ নেই। আমরা দীর্ঘদিন ধরে ট্রেড করছি কিন্তু এখনো নিশ্চিত হয়ে বলতে পারি না, কতটুকু জানি কিংবা শিখেছি। নতুনদের মধ্যে শুধুমাত্র অর্থ উপার্জনের বাসনা কাজ করে কিন্তু তাদের মধ্যে শিখার কোনও আগ্রহ দেখা যায় না। আপনিও যদি এই দলের লোক হয়ে থাকেন তাহলে নিশ্চিত হয়ে বলতে পারি, আপনার ট্রেডিং ক্যারিয়ার এর পরিণাম হবে ভয়াবহ। আপনাদের এই বিষয়ে পর্যাপ্ত ধারণা এবং শিখানোর জন্যই আমাদের এই নতুন “ফরেক্স অনলাইন ট্রেনিং প্রোগ্রাম” । আপনি যদি আরও বেশী এবং বিস্তারিত জানতে চান তাহলে আমাদের এই ট্রেনিং প্রোগ্রামে ফ্রি রেজিস্ট্রেশন করে শিখতে পারেন। আমরা চেষ্টা করেছি ফরেক্স মার্কেট সম্পর্কিত সকল গুরুত্বপূর্ণ বিষয় সমুহকে পর্যায়ক্রমে কোর্স আকারে আপনাদের সামনে তুলে ধরার।
  • মরীচিকার পিছনে ছোটা! বেশীরভাগ ট্রেডারই ট্রেন্ড এর পিছনে না ছুটে, ছোটেন মরীচিকার পিছনে। দিন শেষে এর পরিণাম হয় শুধুই লস। এর পিছনে মুল কারণ হিসাবে রয়েছে, ইন্ডিকেটর এর উপর নির্ভরশীলতা। আপনি যদি, ইন্ডিকেটর এর উপর নির্ভরশীল হয়ে ট্রেডে এন্ট্রি নেন তাহলে আপনি কখনোই একজন ট্রেডার হিসাবে সফল হতে পারবেন না।
    তাহলে কি আমি ইন্ডিকেটর ব্যাবহার করবো না? অবশ্যই করবেন কিন্তু শুরুতেই বলেছি, নির্ভরশীল হওয়া যাবে না। প্রতিটি ইন্ডিকেটরই কোনও না কোনও ট্রেডার নিজের কিছু কৌশল এর সাথে প্রোগ্রামিং দক্ষতাকে কাজে লাগিয়ে তৈরি করেছেন। এখন এই ইন্ডিকেটর যদি এতটাই ভালো কাজ করতো তাহলে এই পৃথিবীতে কেউ গরিব থাকতো না। আপনি কিংবা আমরাই হয়ে যেতাম পৃথিবীর সর্বাপেক্ষা ধনী ব্যাক্তি। ইন্ডিকেটর সবসময়ই, ট্রেডের জন্য সহায়ক ভুমিকা পালন করে থাকে। অর্থাৎ, আপনার নিজের ট্রেডিং দক্ষতাকে কাজে লাগিয়ে আপনি যেই এনালাইসিস করবেন তার সাথে যুক্ত হবে ইন্ডিকেটর। ট্রেডিং এর জন্য ইন্ডিকেটর এর প্রয়োজন আছে কিন্তু আপনাকে এটাও বুঝতে হবে সকল সময়ে এই ইন্ডিকেটর এর সিগন্যাল কাজ করে না। ইন্ডিকেটর সম্পর্কে বিস্তারিত জানার জন্য আমাদের “Middle School কোর্স” টি দেখুন।
  • ট্রেডিং সিগন্যাল এর পিছনে ছোটা – নতুনদের মধ্যে সবচেয়ে বেশী এই প্রবণতা লক্ষ করা যায়। গুগল, বিভিন্ন ট্রেডিং ফোরাম, গ্রুপ, এর মাধ্যমে সিগন্যাল খুঁজে বেড়ানো। যদি আপনি এই ধরণের ট্রেডার হয়ে থাকেন তাহলে নিজেকে প্রশ্ন করুন, সিগন্যাল অনুযায়ী ট্রেড করে আপনি কতটুকু সফল? ট্রেডিং সিগন্যাল যদি এতটাই কাজ করতো তাহলে Bill Gates হয়তোবা এখন পর্যন্ত আর সর্বাপেক্ষা ধনী ব্যাক্তি থাকতেন না।
    যদি নিজেকে একজন সফল ট্রেডার হিসাবে দেখতে চান, তাহলে ট্রেডিং সিগন্যাল খোঁজা বাদ দিয়ে নিজেই নিজের জন্য ট্রেডিং কৌশল নির্ধারণ করার চেষ্টা করুন। সময় নিন, আরও জানুন, বুঝুন তারপর আপনি নিজের জন্য ট্রেডিং কৌশল নির্ধারণ করতে পারবেন। অন্যের কাছে যেতে হবে না।
  • মানি ম্যানেজমেন্ট সম্পর্কে অজ্ঞতা – যেকোনো ব্যাবসা শুরু করার প্রধান কাজ হচ্ছে, মানি ম্যানেজমেন্ট। ধরুন আপনি কিছু অর্থ বিনিয়োগ করে একটি মুদির দোকান এর ব্যাবসা শুরু করলেন। যেহেতু আপনি বিনিয়োগ করেছেন তার অর্থ হচ্ছে অবশ্যই আপনার একটি প্রফিট টার্গেট রয়েছে। হতে পারে সেটা সপ্তাহ, মাস কিংবা বছর ভিত্তিক। ধরুন, বিনিয়োগ করলেন ১০ লক্ষ টাকা এবং আপনি নিজের জন্য প্রফিট টার্গেট নির্ধারণ করলেন ৫০ হাজার টাকা (প্রতি মাসে)। একটু ক্যালকুলেট করে দেখুনতো আপনি কত টাকায় কত টাকা প্রফিট পাচ্ছেন? মাত্র ৫%, প্রতি মাসে।একই ভাবে, আপনি যখন ফরেক্স ট্রেডিং এ বিনিয়োগ করবেন তখনও আপনার একই রকমের প্রফিট টার্গেট নির্ধারণ করে নিতে হবে। সঠিকভাবে মানি ম্যানেজমেন্ট না করেই যদি ফরেক্স ট্রেডিং শুরু করেন তাহলে আপনার অবস্থা হবে, “সমুদ্রের মধ্যে হাল ছাড়া নৌকার মতন“।

সবশেষে, আমরা আপনাকে ট্রেড করতে নিরুৎসাহি করছি না! আমরা শুধুমাত্র আপনাকে ঘুম থেকে জাগানোর চেষ্টা করছি। ফরেক্স ট্রেডিং স্বপ্ন নয়, সম্পূর্ণ বাস্তব। আপনি যদি এই বাস্তবিক কাজের স্বাদ গ্রহন করতে চান তাহলে নিজেকে সেই রকম করে গড়ে তুলতে হবে। না জেনে কিংবা না বুঝে কখনোও ফরেক্স ট্রেডিং শুরু করবেন না। একটি কথা মনে রাখবেন, “কষ্ট ছাড়া কেষ্ট মিলে না


আশা করি আর্টিকেলটি আপনার ভালো লেগেছে। এই আর্টিকেল সম্পর্কিত বিশেষ কোনও প্রশ্ন থাকলে আমাদের জানতে পারেন কিংবা নিচে কমেন্ট করতে পারেন। প্রতিদিনের আপডেট ইমেইল এর মাধ্যমে গ্রহনের জন্য, নিউজলেটার সাবস্ক্রাইব করে নিতে পারেন। এছারাও যুক্ত হতে পারেন আমাদের ফেইসবুক এবং কমিউনিটি পোর্টালে। সেই সাথে রয়েছে আমাদের ভিডিও ট্রেনিং লাইব্রেরী। এছারাও ট্রেড শিখার জন্য জন্য আমাদের রয়েছে অনলাইন ট্রেনিং পোর্টাল।
পূর্বের আর্টিকেলইতালীয়ান সাধারণ নির্বাচন
পরবর্তী আর্টিকেলফরেক্স ট্রেডিং কাদের জন্য ?
Fx Bangladesh
নতুনদের ফরেক্স ট্রেডিং সংক্রান্ত সকল ধরণের সহায়তা করার জন্য ,ফরেক্স বাংলাদেশ কাজ করে যাচ্ছে। ইতিমধ্যেই আমরা প্রায় ২২০০+ অধিক ট্রেডারকে, ফরেক্স ট্রেডিং সংক্রান্ত সঠিক দিক নির্দেশনা প্রদান করে আসছি এবং আমাদের এই অগ্রযাত্রা অব্যাহত থাকবে বলে আশা করি। ফরেক্স ট্রেডিং সংক্রান্ত আপনার যেকোনো সহায়তার জন্য আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন। ধন্যবাদ ।

কমেন্ট/প্রশ্ন করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here