GBPUSD টেকনিক্যাল এনালাইসিস – জানুয়ারি ২১

0
72
GBPUSD Technical Analysis for January 21, 2019
GBPUSD Technical Analysis for January 21, 2019
- ফান্ড ডিপোজিট করুন নেটেলার এর মাধ্যমে -

fxbangladesh.com – গত বেশ কয়েক মাস ধরে বড় টাইমফ্রেমে GBP/USD কারেন্সি পেয়ার ডাউনট্রেন্ড ধরে রেখেছে এবং এখন পর্যন্ত মার্কেট ডাউনট্রেন্ড এই বিদ্যমান রয়েছে। আমাদের সর্বশেষ এনালাইসিস অনুযায়ী কারেন্সি পেয়ারটি প্রফিট টার্গেট স্পর্শ করেছে এবং প্রফিট টার্গেট থেকে পুনরায় নিচে নেমে বর্তমানে H4 টাইমফ্রেম এর চার্টে একটি Ascending Channel এর মধ্যে অবস্থান করছে।

নিচের H4 এর চার্টটি একটু ভাল করে লক্ষ্য করুন –

- ট্রেড শুরু করুন ফ্রি বোনাস নিয়ে -

GBPUSD Technical Analysis For January 21, 2019 - Price has Reached the Lower Boundary in Ascending Channel according to H4 Time Frame

উপরোক্ত চার্টে –

নীল লাইন = আপ চ্যানেল

লাল লাইন = স্টপলস লেভেল = 1.2933

সবুজ লাইন = পসিবল প্রফিট টার্গেট = 1.2732

কালো লাইন = ব্রেকআউট এন্ট্রি লেভেল = 1.2839

H4 টাইমফ্রেম অনুযায়ী, আমাদের পূর্বের প্রদত্ত এনালাইসিস অনুযায়ী প্রাইস চ্যানেল এর আপ রেঞ্জ থেকে বর্তমানে নিচের দিকে নেমে এসেছে এবং ইতিমধ্যেই আমাদের প্রদত্ত প্রফিট টার্গেট জোনকেও স্পর্শ করেছে। এমতাবস্থায় যাদের এখন পর্যন্ত কোনও Sell এন্ট্রি রয়েছে তারা চাইলে প্রফিট নিয়ে এন্ট্রি ক্লোজ করে ফেলতে পারেন কিংবা চ্যানেল এর লো-রেঞ্জ = 1.2839 এর ব্রেকাআউট হওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করতে পারেন। তবে আমাদের পরামর্শ থাকবে প্রফিট নিয়ে নেয়ার।

এবার চলুন একটি বড় টাইমফ্রেম এর চার্ট দেখে নেয়া যাক –

GBPUSD Technical Analysis For January 21, 2019 - Price Has Bounced from Upper Channel Range in the Descending Channel according to Daily Time Frame

Daily টাইমফ্রেমে, GBPUSD কারেন্সি পেয়ার এখন পর্যন্ত নিম্নমুখী চ্যানেল এর মধ্যে অবস্থান করছে এবং আমাদের পূর্বের এনালাইসিস অনুযায়ী Descending Channel এর আপ রেঞ্জ থেকে বাউন্স করে আবার নিচের দিকে নিমে আসছে। যারা এনালাইসিস অনুযায়ী SELL এন্ট্রি গ্রহন করেছিলেন তাদের জন্য পরামর্শ থাকবে এন্ট্রি ধরে রাখার। যতক্ষণ পর্যন্ত প্রাইস, এই চ্যানেল এর রেঞ্জ ব্রেক করতে সক্ষম না হবে, ততক্ষণ পর্যন্ত আমাদের পূর্ব নির্ধারিত সেল ট্রেন্ড এখন পর্যন্ত সক্রিয় থাকবে। অর্থাৎ, যতক্ষণ পর্যন্ত প্রাইস 1.3000 এর নিচে থাকবে ততক্ষণ পর্যন্ত আমরা সেল টেন্ড এর সাথে থাকবো। যারা নতুন করে কোনও ধরনের SELL এন্ট্রি গ্রহন করতে চান তারা চাইলে এন্ট্রি গ্রহন করতে পারবেন তবে সেক্ষেত্রে স্টপলস ব্যবহার করতে হবে, আপ চ্যানেল লেভেল এর ঠিক উপরে অর্থাৎ, 1.3000 এর উপরে। প্রদিট টার্গেট লেভেল হচ্ছে, 1.2491 এর কাছাকাছি।

ট্রেডিং পরামর্শ –

  • H4 টাইমফ্রেমে, কোনও ধরনের BUY এন্ট্রি না নেয়ার অনুরধ করা হচ্ছে। যদি H4 টাইমফ্রেমে ক্যান্ডেল 1.2930 এর উপরে ক্লোজ হয় তাহলে বাই এন্ট্রি গ্রহন করা যেতে পারে। সেক্ষেত্রে স্টপলস পজিশন হবে, 1.2835 এর কাছাকাছি।
  • H4 টাইমফ্রেমে, এখনই কোনও ধরনের SELL এন্ট্রি গ্রহন না করার পরামর্শ প্রদান করছি। যদি প্রাইস চ্যানেল এর রেঞ্জ ব্রেক করতে সক্ষম হয় তাহলেই নতুন করে সেল এন্ট্রি নেয়া যেতে পারে। তবে সেক্ষেত্রে অবশ্যই প্রাইসকে 1.2800 এর নিচে H4 এর ক্যান্ডেল ক্লোজ করতে হবে।
  • Daily চার্টে, যাদের বিদ্যমান সেল পজিশন রয়েছে তারা চাইলে এন্ট্রি ধরে রাখুন এবং ডাউন চ্যানেল এর প্রাইস পর্যন্ত অপেক্ষা করতে পারেন। তবে সেক্ষেত্রে স্টপলস পজিশন হবে, 1.3200 এর কাছাকাছি।

ব্রেক্সিট সতর্কতা-

হাউস অফ কমন্স এর সদস্যদের প্রদানকৃত ভোটাভোটির মাধ্যমে, প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে এর উত্থাপিত ব্রেক্সিট চুক্তি বাতিল হিসাবে বিবেচিত হয়েছে। যার অর্থ হচ্ছে, প্রস্তাবিত এই চুক্তির মাধ্যমে ব্রিটেন, ব্রেক্সিট প্রক্রিয়ায় ইউ এর সদস্যতাপদ বাতিল করছে না। যার অর্থ হচ্ছে, কোনও ধরনের চুক্তি ছাড়াই ব্রিটেনকে, ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন এর সদস্যতাপদ বাতিল করতে হতে পারে। ভোট এর ফলাফল –

  • পক্ষে: ২০২
  • বিপক্ষে: ৪৩২

অন্যদিকে আগামি মার্চ ২৯ এর মধ্যেই, ব্রিটেনকে Article 50 এর শর্ত অনুযায়ী ব্রেক্সিট প্রক্রিয়া বাতিল করতে হবে নতুবা সম্পর্ক বাতিল এর এই প্রক্রিয়া অনেকাংশে জটিল হয়ে যাবে। অন্যদিকে, জার্মান চ্যান্সেলর এঞ্জেলো মার্কেল ইতিমধ্যেই ব্রেক্সিট চুক্তি নিয়ে ভিন্ন কোনও ধরনের আলোচনা না করার সিদ্ধান্ত জানিয়েছেন।

যেহেতু থেরেসা মে এর উত্থাপিত ব্রেক্সিট চুক্তির উপর ক্যাবিনেট সদস্যরা সম্মতি প্রকাশ করেন নিন সেক্ষেত্রে, থেরেসা মে আরও ৭২ ঘন্টা সময় পাবেন, বিকল্প কোনও চুক্তি উত্থাপন করার। গতকাল রাতে, হাইস অফ কমন্স এর এক যুক্তি-তর্ক এর সময় প্রধানমন্ত্রী জানিয়েছেন, আর কোনও ধরনের বিল কিংবা চুক্তি নিতে চিন্তা করার সুযোগ তার কাছে নেই। এদিকে লিভারেল পার্টি, নতুন করে থেরেসা মে এর উপর অনাস্থা ভোট এর আহ্বান করেছে যার ফলাফল হিসাবে থেরেসা মে এর মন্ত্রিত্ব নিয়ে নতুন করে সন্দেহের উদ্ভব হল।

ব্রিটেন এবং ব্রেক্সিট প্রক্রিয়ার ভবিষ্যৎ কি হতে পারে সে বিষয় এখন পর্যন্ত পরিস্কার করে কিছুই বলা যাচ্ছে না। কিছু প্রশ্ন এখন পর্যন্ত বিদ্যমান যার কারনে ব্রিটেন এর সাময়িক অর্থনীতি ঠিক কোনদিকে যেতে পারে সেটা নিয়েও রয়েছে অনেকবেশী জল্পনা – কল্পনা। বেশ অনেকগুলো বিষয় ইতিমধ্যেই আরও জটিল হয়ে উঠেছে,

  • থেরেসা মে, কি তাহলে প্রধানমন্ত্রী হয়ে ক্ষমতায় থাকছেন?
  • ব্রেক্সিট প্রক্রিয়ায় কি পুনরায় গণভোট অনুষ্ঠিত হতে পারে?
  • আগামি মার্চ ২৯ এর মধ্যে কি তাহলে ব্রেক্সিট সম্পন্ন হচ্ছে না?
  • ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন, চুক্তি বাতিল এর এই সিদ্ধান্তকে কিভাবে মেনে নিবে?

প্রশ্নগুলোর উত্তর এখন পর্যন্ত পরিস্কার নয়। এবং এই বিষয়গুলোর প্রভাব, আমরা সরাসরি ফরেক্স ট্রেডে দেখতে পাবো। আসছে কয়েকদিন GBP এবং EUR পেয়ারের অস্বাভাবিক মুভমেন্ট এর জন্য তৈরি থাকার পরামর্শ প্রদান করা হচ্ছে।

ঝুঁকি সতর্কতা 

ফরেক্স ট্রেডিং একটি ঝুঁকিপূর্ণ বিনিয়োগ মাধ্যম। প্রকাশিত এই এনালাইসিস শুধুমাত্র আপনাকে মার্কেটের বিদ্যমান একটি ধারণা প্রদানের জন্য দেয়া হয়েছে। শুধুমাত্র, এই এনালাইসিস এর উপর ভিত্তি করেই কোনও ধরনের ট্রেডে এন্ট্রি গ্রহন করা থেকে বিরত থাকুন। আপনার কোনও ধরনের লস/ক্ষতির দায়ভার FX Bangladesh গ্রহন করবে না। বিস্তারিত জানার জন্য অনুগ্রহ করে আমাদের Risk Warning আর্টিকেলটি পড়ে নিন।

 

আশা করি এই আর্টিকেলটি আপনার ভালো লেগেছে।
সম্পূর্ণ নতুন করে তৈরি আমাদের অনলাইন ট্রেনিং প্রোগ্রামে এখনই রেজিস্ট্রেশন করুন। ফরেক্স মার্কেট সম্পর্কিত যেকোনো তথ্য আমাদের Facebook, YouTube এবং Forum থেকে জানুন।
গুরুত্বপূর্ণ সব আপডেট পেতে সাবস্ক্রাইব করুন।

 

- নির্ভরযোগ্য এবং বিশ্বস্ত ব্রোকার 
Instaforex Broker Exness Broker IQ Option Broker WesternFX Broker FBS Broker
Skrill Neteller ETORO Broker ICMarkets Broker Hotforex Broker

কমেন্ট/প্রশ্ন করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here