ফরেক্স ট্রেডিং শুরু করার কিছু ধাপ

2
763
Trading The Forex
- যুক্ত হউন টেলিগ্রাম চ্যানেলে -

Trading The Forex – সবাই আমরা ট্রেড করতে চাই। ট্রেড করার জন্য আগ্রহি থাকি কিন্তু কিভাবে ট্রেড শুরু করবো এর থেকে বেশী গুরুত্বপূর্ণ হচ্ছে ট্রেড শুরু করার জন্য ঠিক কি কি বিষয় সম্পর্কে জানা উচিত সে বিষয় সম্পর্কে পর্যাপ্ত ধারনা থাকা।

কিন্তু খারাপ হলেও সত্য, বাংলাদেশ থেকে যারা ট্রেড করছেন তাদের সফলতার হার অনেক কম এবং এর প্রধান কারন হচ্ছে ট্রেডিং সম্পর্কে পর্যাপ্ত জ্ঞান এর অভাব। এখন পর্যন্ত আমরা সবাইকেই অনুরধ করি ট্রেড করা থেকে ট্রেড শিখায় মনোযোগী হন কিন্তু তারপরও সবাই কিভাবে ট্রেড করতে হয় সে বিষয়ে আগ্রহী এবং অতি-উৎসাহী থাকেন, কিন্তু শিখায় না।

এর মুল একটি কারনও রয়েছে। যদি এমন করে বলি, আমাদের দেশ থেকে যারা ট্রেড করছেন তাদের ৯০ ভাগই জানেন না ফরেক্স মার্কেটের বিস্তারিত। কেননা, আমরা কারও না কারও কাছ থেকে শুনেই ফরেক্স ট্রেডিং শুরু করি। শুরু ঠিকই করতে পারি কিন্তু কিভাবে সফলভাবে ট্রেড করতে হয় সেটি আমরা জানি না। এর বেশকিছু কারনও রয়েছে।

আজকের Trading the Forex আর্টিকেলে আমরা এই সম্পর্কে কিছু তথ্য আপনাদের সামনে উপস্থাপন করার চেষ্টা করবো যা মাধ্যমে আপনার ফরেক্স ট্রেডিং এর অপ্রিয় কিছু সত্য সম্পর্কে জানতে এবং বুঝতে পারবেন। তাহলে চলুন শুরু করি।

ব্রোকার নির্বাচনঃ ফরেক্স ট্রেডিং এর দুনিয়ায় পা দেয়ার প্রথম মাধ্যম হচ্ছে, একটি ভাল ব্রোকার নির্বাচন করে নেয়া। কেননা অনলাইনের দুনিয়াতে ফরেক্স ব্রোকার আছে ভুরিভুরি কিন্তু এখন তাহলে প্রশ্ন হচ্ছে, কোনও ব্রোকারে ট্রেড করবো? আসলে এর সঠিক কোনও উত্তর প্রদান করা আমাদের পক্ষে সম্ভব নয়।

কেননা এক এক জনের কাছে এক এক ব্রোকার এক এক রকমের সুবিধা প্রদান করে থাকে। এখন এর জন্য আপনাকে যাচাই-বাছাই করে নিতে হবে, আপনি কোনও ব্রোকার পছন্দ করেন কিংবা আপনার ট্রেডিং কৌশল এর জন্য আপনার জন্য ভাল ব্রোকার কোনটি!

ব্রোকার নির্বাচন করার জন্য এবং কিভাবে এই ব্রোকার কাজ করে সে বিষয়ে বিস্তারিত বোঝার জন্য আমাদের একটি গুরুত্বপূর্ণ ট্রেনিং কোর্স রয়েছে। আমাদের পরামর্শ থাকবে, অনুগ্রহ করে ব্রোকার নির্বাচন করার আগে “Broker-101” এই ট্রেনিং কোর্সটিতে অংশ গ্রহন করে বিস্তারিত শিখে নেয়ার।

ভাল ব্রোকার নির্বাচন পদ্ধতি

ব্রোকার নির্বাচন করার বেশকয়েকটি মাধ্যম রয়েছে যাদের মধ্যে সবচেয়ে বড় মাধ্যম হচ্ছে ব্রোকার এর রেগুলেশন সম্পর্কে খোঁজ নেয়া।

এই রেগুলেশন হচ্ছে, আপনি যেই ব্রোকারে ট্রেড করবেন সেই ব্রোকারটি ঠিক কোন নিয়ন্ত্রক সংস্থা এর মাধ্যমে নিয়ন্ত্রিত হয়ে থাকে। এই রেগুলেশন মুলত ব্রোকার এর নির্ভরযোগ্যতা বাড়ায়। যেমন, আমাদের দেশের ব্যাংক গুলোকে নিয়ন্ত্রন করে থাকে কেন্দ্রিয় ব্যাংক যা “Bangladesh Bank” নামে পরিচিত।

Forex Regulation

এখন ধরুন কোনও ব্যাংক যদি আপনার সাথে সমস্যা করে তাহলে আপনি সেই বিষয়ে বাংলাদেশ ব্যাংক এর কাছে নালিশ করতে পারবেন। বাংলাদেশ ব্যাংক তখন ওই ব্যাংক এর ব্যাপারে ব্যবস্থা গ্রহন করবে।

ফরেক্স ব্রোকারদের বেলায়ও রেগুলেটরি কমিটি ঠিক একই দায়িত্ত পালন করে থাকে। যদি কোনও ব্রোকার আপনার সাথে খারাপ কিছু করার চেষ্টা করে তাহলে আপনি নিয়ন্ত্রক সংস্থা এর কাছে অভিযোগ জানাতে পারবেন। আশা করছি রেগুলেশন এর বিষয়টিকে বোঝাতে পেরেছি।

একটি ব্রোকার এক কিংবা একাধিক প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে রেগুলেশন গ্রহন করতে পারে। ব্রোকার এর রেগুলেশন যতবেশী থাকবে সেটির নির্ভরযোগ্যতাও তত বেশী থাকবে।

যেমনঃ FCA (UK) ; ASIC (Australia), BaFIn (Germany); CySEC (Cyprus); FSA (Seychelles);  ইত্যাদি।

যদি আপনার ব্রোকারের রেগুলেশন সম্পর্কে কোনও তথ্য জানা না থাকে তাহলে ফান্ড ডিপোজিট করার পূর্বে সঠিকভাবে জেনেনিন। তারপর ডিপোজিট করুন। যদি ব্রোকারের রেগুলেশন না থাকে কিংবা শুধু নামমাত্র তথ্য প্রদান করা থাকে কিংবা কোনও লাইসেন্স কিংবা রেজিস্ট্রেশন নাম্বার না থাকে তাহলে সে ব্রোকারে ট্রেড করা থেকে বিরত থাকুন।

আপনাদের সুবিধার জন্য আমরা বেশীকিছু ব্রোকার এর বিস্তারিত তথ্য উপস্থাপন করেছি আমাদের ব্রোকার সেকশনে। সেখান থেকে জনপ্রিয় কিছু ব্রোকার, এদের রেগুলেশন, এবং আরও বিস্তারিত তথ্যসমুহ পেয়ে যাবেন। অনুগ্রহ করে আমাদের ব্রোকার পোর্টালে দেখে নিন – “ফরেক্স ব্রোকার

এছাড়াও, বেশকিছু ব্রোকার রয়েছে যাদের কাজ হচ্ছে মূলত গ্রাহকদের সাথে প্রতারণা করা। এই ব্রোকারগুলোকে আমারা ইতিমধ্যেই “SCAM Broker” হিসাবে চিহ্নিত করেছি। সুতরাং, চাইলে সেই লিস্টটি দেখে নিতে পারেন।

Trading The Forex এর প্রথম ধাপ সফলভাবে শেষ। এবার আমরা পরবর্তী ধাপে কিভাবে ট্রেডিং করবেন কিংবা শিখবেন সে বিষয়ে জানার চেষ্টা করবো।

ট্রেডিং শিখা

আমরা সবথেকে কম সময় দেই ট্রেডিং শিখা নিয়ে। আমাদের সবারই টার্গেট থেকে যত তাড়াতাড়ি ফরেক্স ট্রেডিং শুরু করতে পারবো ততবেশী পরিমাণ প্রফিটও করতে পারবো। কিন্তু বিষয়টি সম্পূর্ণরুপে সত্য নয়।

ফরেক্স ট্রেডিং করা শিখতে ২/৩ ঘন্টার বেশী সময় লাগেনা। কিন্তু ফরেক্স মার্কেট বুঝতে আপনার সারাবছর সময় লেগে যাবে। কেননা এর শিখার কোনও শেষ নেই এবং আপনি কখনই শিখা শেষ করতে পারবেননা।

আমরা সবসময় ট্রেড করা থেকে ট্রেড শিখার পিছনে উৎসাহী করি সবাইকে কেননা এই মার্কেট এর উত্থান-পতন সবকিছুই আমরা দেখেছি তাই আমরা বারবার শিখার জন্য জন্য সবাইকে উৎসাহী করি এবং এর জন্য আমাদের বেশকিছু সেবাও রয়েছে।

অনলাইন ট্রেনিং – এই অনলাইন ট্রেনিং এর মাধ্যমে কিছু কোর্স উপস্থাপন করা হয়েছে আপনাদের সুবিধার জন্য, যার মাধ্যমে আপনি নিজ থেকে ফরেক্স ট্রেডিং এর সাথে সম্পর্কিত বিভিন্ন বিষয়সমুহ জানতে এবং শিখতে পারবেন। ২০১৮ সাল থেকে আমাদের এই অনলাইন ট্রেনিং এর যাত্রা শুরু হয় এবং আপনি যাতে ধাপে ধাপে ট্রেডিং শিখতে পারেন সে বিষয়ে আমরা চেষ্টা করেছি এবং এখন পর্যন্ত আমাদের এই কার্যক্রম বিদ্যমান।

ফরেক্স ট্রেডিং এর সাথে সম্পৃক্ত বিভিন্ন বিষয়গুলোকে আমরা বেশকিছু কোর্স আকারের প্রকাশ করেছি যেগুলোতে অংশ নিয়ে আপনি ঘরে বসেই ট্রেডিং শিখতে পারবেন।

ফ্রি রেজিস্ট্রেশন করেই আমাদের এই ট্রেনিং প্রোগ্রামে অংশ নিতে পারবেন। বিস্তারিত জানার জন্য আমাদের “অনলাইন ট্রেনিং পোর্টাল” ক্লিক করে রেজিস্ট্রেশন করে নিন।

একটি বিষয় সবসময় মনে রাখবনে, জতদিন পর্যন্ত আপনি ফরেক্স ট্রেডিং এর বিষয়গুলো ভাল করে বুঝতে না পারবেন ততদিন পর্যন্ত কোনওভাবে রিয়েল ট্রেডিং শুরু করা যাবেনা। আমাদের পরামর্শ হচ্ছে,

আপনি শিখে কমপক্ষে ৬ মাস প্রাক্টিস ট্রেড করবেন এবং এরপর যদি মনে করেন ট্রেড করার জন্য আপনি তৈরি তাহলেই কেবল রিয়েল ট্রেডিং করা যেতে পারে।

ট্রেড শিখার সময় আপনাকে যা যা শিখলেন সেগুলোকে প্র্যাকটিস করে নিতে হবে এবং এর জন্য আপনাকে অবশ্যই একটি ডেমো কিংবা প্রাকটিস ট্রেডিং একাউন্ট রেজিস্টার করে নিতে হবে। Trading The Forex এর পরবর্তী ধাপ হচ্ছে কিভাবে ডেমো একাউন্ট খুলতে হয়।

প্রাকটিস ট্রেডিং একাউন্ট

ট্রেড শিখার সময় আপনি যা যা জানবেন সেগুলোকে রিয়েল ট্রেডে ব্যবহার করার পূর্বে অবশ্যই প্রাকটিস ট্রেডের মাধ্যমে সেটিকে ঝালাই করে নিতে হবে। এই প্র্যাকটিস ট্রেডিং হচ্ছে মুলত রিয়েল ট্রেডিং এরই একটি ছায়া-বিশেষ।

রিয়েল ট্রেডিং এর সাথে প্রাকটিস ট্রেডিং পার্থক্য হচ্ছে, আপনাকে এর জন্য কোনও ফান্ড ডিপোজিট করতে হবেনা। আপনি ডামি ফান্ড এর মাধ্যমে ট্রেড করার সুবিধা পাবেন এবং সেই সাথে রিয়েল ট্রেডিং কিভাবে করতে হয় সে বিষয়ে বিস্তারিত ধারনা পাবেন।

কিভাবে ডেমো একাউণ্ট খুলে হয় সে বিষয়ে বিস্তারিত জানার জন্য অনুগ্রহ করে এই লিংক এর আর্টিকেলটি পড়ে নিন। প্রাকটিস ট্রেডিং একাউন্ট

একটি কথা আমরা অনেকেই ভুলে যাই। প্র্যাকটিস ট্রেডিং এর প্রফিট করার অর্থ এই নয় যে আপনি রিয়েল ট্রেডিং এও প্রফিট করতে পারবেন। কেননা প্র্যাকটিস ট্রেডিং রিয়েল ট্রেডিং বেশকিছু পার্থক্য রয়েছে। সুতরাং, আপনি যদি মনে করে থেকেন যে ডেমো ট্রেডিং ভালো করলেই রিয়েল ট্রেডিং ভালো করতে পারবেন তাহলে বলতে হবে আপনি, “বোকার স্বর্গে বাস করছেন” ।

আপনার সুবিধার জন্য, এই সম্পর্কে একটি বিস্তারিত আর্টিকেল আমরা উপস্থাপন করেছি। অনুগ্রহ করে বিস্তারিত তথ্য জানার জন্য Real vs Demo এই আর্টিকেলটি পড়ে নিন।

Practice Trading

Trading The Forex এই ধাপের সর্বশেষ বিষয় হচ্ছে ফান্ড ডিপোজিট প্রক্রিয়া। এবার এই বিষয়টি নিয়ে আমরা এখন আলোচনা করবো।

বেশীরভাগ সময়ই দেখা যায়, প্র্যাকটিস ট্রেডিং করার সময় আমরা তেমন সময় দেই না কিংবা শিখার চেষ্টাও করি না। যেমন খুশি তেমনভাবে এন্ট্রি নেই। প্রফিট করি আবার লসও করি। এভাবে যদি ডেমো ট্রেডিং করেন তাহলে আপনার কপালে কিন্তু শনি আছে।

প্র্যাকটিস ট্রেড করার জন্য বিশেষ কিছু বিষয়ে লক্ষ্য রাখা খুব গুরুত্বপূর্ণ। এই সম্পর্কে বিস্তারিত পাবেন “প্র্যাকটিস ট্রেডিং এর করণীয়” আর্টিকেলটি থেকে। অনুগ্রহ করে এই আর্টিকেলটি ভালো করে জেনে নিতে পারেন।

ফান্ড ডিপোজিট প্রক্রিয়া

শুরুতেই বলে রাখি, বাংলাদেশে থেকে কোনও লোকাল ব্যাংক, ব্যাংক এর কার্ড এর মাধ্যমে আপনি ফরেক্স ট্রেডিং এর বিনিয়োগ করতে পারবেননা। কেননা, আমাদের দেশের কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নীতিমালা মোতাবেক সেটি সম্ভব নয়।

এই সম্পর্কে আরও বিস্তারিত তথ্যাদি জানার জন্য অনুগ্রহ করে আমাদের “Risk Warning” আর্টিকেলটি ভালো করে পড়ে নিন।

তাহলে এখন প্রশ্ন হচ্ছে, বাংলাদেশ থেকে কি ফরেক্স ট্রেড করা যাবে না?

Forex Deposit System

ট্রেডিং এর লেনদেন করার জন্য আমাদের পরামর্শ হচ্ছে, নেটেলার কিংবা স্ক্রিল এর ব্যবহার। কেননা এই দুইটি মাধ্যম খুব বেশী পরিমাণ নির্ভরযোগ্য এবং জনপ্রিয় এবং বাংলাদেশ থেকে আপনি খুব সহজেই একাউন্ট খুলে সেটিকে ভেরিফাই করে লেনদেন করে নিতে পারবেন। এগুলো সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য জানার জন্য অনুগ্রহ করে Neteller এবং Skrill এই আর্টিকেল দুইটি পড়ে নিন।

এছাড়াও আরও বেশকিছু মাধ্যম ব্যবহার করে আপনি চাইলে ফান্ড ডিপোজিট করে নিতে পারবেন। এই সম্পর্কে আরও বিস্তারিত তথ্য জানার জন্য অনুগ্রহ করে ফরেক্স ডিপোজিট সিস্টেম আর্টিকেলটি পড়ে নিন।

সঠিক কারেন্সি পেয়ার নির্বাচন

নতুন হিসাবে রিয়েল ট্রেডিং করার জন্য গুরুত্বপূর্ণ হচ্ছে নির্দিষ্ট করে শুধুমাত্র একটি কারেন্সি পেয়ার নির্বাচন করে নেয়া। ট্রেড করার জন্য ব্রোকার একাধিক কারেন্সি পেয়ার প্রদান করলেও, আমাদের পরামর্শ হচ্ছে শিধুমাত্র একটি নির্দিষ্ট কারেন্সি পেয়ারেই ট্রেড করবেন।

একাধিক কারেন্সি পেয়ারে ট্রেড করতে হলে, আপনাকে একাধিক কারেন্সি এবং এর সাথে সম্পৃক্ত নিউজ এবং এনালাইসিস নিয়ে খুব বেশী সময় প্রদান করতে হবে। নতুন অবস্থায় যেটি আপনার জন্য কষ্টকর! এতে করে আপনি ভালো করে মার্কেটকে যাচাই-বাছাই করতে পারবেননা। যার ফলে দেখা যাবে, ভুল এন্টি নিয়ে বসেছেন এতে করে আপনার ব্যালেন্সের উপর ঝুঁকির পরিমাণ অনেক বৃদ্ধি পাবে।

সেই সাথে, একটি কারেন্সিতে ট্রেড করার ফলে আপনি বেশী পরিমাণ সময় দিয়ে এনালাইসিস করতে পারবেন। এতে করে এন্ট্রি ভুল হবার সম্ভাবনাও হবে অনেক কম।

রিয়েল ট্রেডারদের সহায়তা করার জন্য, আমরা নিয়মিত বিভিন্ন কারেন্সি পেয়ারের টেকনিক্যাল এনালাইসিস প্রদান করে থাকি। আপনি চাইলে “ফরেক্স এনালাইসিস” সেকশন থেকে বিস্তারিত জেনে নিতে পারেন। এই এনালাইসিসগুলো ট্রেডে এন্ট্রি গ্রহন এবং মার্কেট বুঝতে আপনাকে সহায়তা করবে বলে আমাদের বিশ্বাস।

সারমর্ম

  • ট্রেডিং শুরু করার থেকে ট্রেড শিখায় মনোযোগী হন।
  • কারও কথায় প্রলুব্ধ হয়ে ফরেক্স ট্রেডিং করা থেকে বিরত থাকুন।
  • রিয়েল ট্রেড শুরু করার আগে কম পক্ষে ৬ মাস প্র্যাকটিস ট্রেড করুন।
  • প্র্যাকটিস ট্রেডকে রিয়েল ট্রেডিং মনে করে ট্রেড করুন।
  • প্র্যাকটিস ট্রেডে নিজের ট্রেডিং কৌশল সেট করুন এবং সেটির ফলাফল চেক করুন।
  • সবকিছু জেনে বুঝে তারপর ট্রেডিং শুরু করবেন।

আশা করি আর্টিকেলটি আপনার ভালো লেগেছে। এই আর্টিকেল সম্পর্কিত বিশেষ কোনও প্রশ্ন থাকলে আমাদের জানতে পারেন কিংবা নিচে কমেন্ট করতে পারেন। প্রতিদিনের আপডেট ইমেইল এর মাধ্যমে গ্রহনের জন্য, নিউজলেটার সাবস্ক্রাইব করে নিতে পারেন। এছারাও যুক্ত হতে পারেন আমাদের ফেইসবুক এবং টেলিগ্রাম চ্যানেলে। এছারাও ট্রেড শিখার জন্য জন্য আমাদের রয়েছে বিশেষায়িত অনলাইন ট্রেনিং পোর্টাল।

যুক্ত হউন আমাদের টেলিগ্রাম চ্যানেলে, জানুন মার্কেট আপডেট

2 কমেন্ট

কমেন্ট/প্রশ্ন করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here