Moving Average এর মাধ্যমে কিভাবে ট্রেডে এন্ট্রি নিবেন?

0
662
- ফান্ড ডিপোজিট করুন নেটেলার এর মাধ্যমে -

আমরা সবসময়ই চেষ্টা করে আসছি আপনাদেরকে ফরেক্স মার্কেট সম্পর্কে আরও ভালো এবং মানসম্মত কিছু ট্রেডিং কৌশল শিখানোর। আজকের আর্টিকেলে আমরা, ট্রেডিং এর জন্য কৌশল নিয়ে আলোচনা করবো। আশা করি এই কৌশলটি আপনাদের কাজে আসবে। আজকে আমরা আলোচনা করবো Moving Average trade setup নিয়ে।

কৌশলটি কাদের জন্য?

Moving Average trade setup এই কৌশলটি সবচেয়ে ভালো কাজ করবে যদি আপনি একজন Day Trader, Swing Trader কিংবা Position Trader হয় থাকেন। যারা স্কাল্পিং করতে পছন্দ করেন, তাদের জন্যও এটি বেশ কার্যকরী কিন্তু স্কাল্পিং যেহেতু ছোট সময়ের ট্রেড আর ছোট সময়ে ভালো ট্রেড সিগন্যাল পাওয়া যায় না। তাই যারা স্কাল্পিং এর জন্য এই কৌশলটি ব্যাবহার করবেন তারা অবশ্যই পূর্বে এটি ভালো করে প্র্যাকটিস করে নিবেন।

- স্পন্সর পোস্ট -

আপনি যদি না জানেন, আপনি কি ধরনের ট্রেডার তাহলে অনুগ্রহ করে আমাদের “ট্রেডার এর ধরন” এই আর্টিকেলটি একবার পড়ে দেখুন।

চার্ট সেটআপ

Moving Average trade setup এই কৌশলটি জনপ্রিয় একটি ইন্ডিকেটর Moving Average এর মাধ্যমে গঠিত। আমরা আগেই বিভিন্ন ধরনের মুভিং এভারেজ সম্পর্কে আলোচনা করেছি। তারপরও আপনি যদি মুভিং এভারেজ ইন্ডিকেটর সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে চান তাহলে আমাদের ইন্ডিকেটর সেকশনে দেখুন।

এবার আপনি আপনার ট্রেডিং প্ল্যাটফর্ম এর মধ্যে এই মুভিং এভারেজ ইন্ডিকেটরটি সেট করবেন।

আমরা এই কৌশলে, তিনটি আলাদা আলাদা মুভিং এভারেজ নিয়ে কাজ করবো। এক্ষেত্রে আমরা নির্বাচন করেছি Exponential Moving Average । এখানে আমরা তিনটি আলদা আলাদা মুভিং এভারেজ এর মান সেট করে আমাদের চার্টে যুক্ত করে নিব যার মান গুলো হবে যথাক্রমে-

Moving Average (EMA) – 6 (Blue Line)
Moving Average (EMA) – 14 (Yellow Line)
Moving Average (EMA) – 26 (Red Line)

কিভাবে আপনার চার্টে মুভিং এভারেজ যুক্ত করবেন?

প্রথমে আপনি যেই ট্রেডিং প্ল্যাটফর্ম ব্যাবহার করছেন সেটাতে যাবেন। এখানে MT4 কিংবা MT5 একই । সেখান থেকে আপনার পছন্দের কারেন্সি পেয়ার নির্বাচন করুন এবং একটি চার্ট ওপেন করুন। চার্ট ওপেন হওয়ার পর, আপনার ট্রেডিং প্ল্যাটফর্ম এর একদম উপরে দেখুন Insert –> Indicator –> Trend –> Moving Average এ ক্লিক করুন। আপনার সুবিধার জন্য আমরা নিচে চিত্রের সাহায্যে দেখানোর চেষ্টা করেছি-

উপরের চিত্রের মতন আপনার চার্টে আপনি মুভিং এভারেজ সেট করে নিতে পারবেন। এর পর আপনি Moving Average বাটনে ক্লিক করলে নিম্নের চিত্রের মতন একটি বক্স আসবে। এখানে এই ইন্ডিকেটর এর মান/Value সেট করে নিবেন। লক্ষ্য করবেন, আমরা এখানে শুধুমাত্র Exponential moving average নিয়ে কাজ করবো।

Period এর ঘরে 6 বসাবেন এবং MA method এর ঘরে Exponential সিলেক্ট করে নিবেন। এবার আপনার পছন্দ অনুযায়ী রঙনির্বাচন করবেন যাতে করে আপনি চার্টে রঙ দেখেই বুঝতে পারেন এটি 6 period এর মুভিং এভারেজ।

একই রকম করে, 14 এবং 26 period এর আলাদা আলাদা করে মুভিং এভারেজ আলাদা আলাদা রঙ নির্বাচন অরে সেট করে নিবেন।

আমরা আপনার বোঝার সুবিধার্থে,

পিরিয়ড এর মুভিং এভারেজ এর রঙ- নীল,
১৪ পিরিয়ড এর মুভিং এভারেজ এর রঙ- হলুদ এবং
২৬ পিরিয়ড এর মুভিং এভারেজ এর রঙ- লাল নির্বাচন করেছি। তবে আপনি চাইলে আপনার মতন রঙ নির্বাচন করে নিতে পারবেন।

৩টি মুভিং এভারেজ সেট করা হয়ে গেলে আপনার চার্টে তিনটি আলাদা আলাদা মুভিং এভারেজ এর লাইন দেখতে পাবেন।

ট্রেডিং কৌশল

আমরা এখানে GBP/USD কারেন্সি পেয়ারের একটি 30mnt এর চার্টে কিছু কৌশল এর ব্যাবহার দেখানোর চেষ্টা করেছি।

কিভাবে বাই/Buy সিগন্যাল পাবেন?

যেহেতু আমরা তিনটি ভিন্ন মানের মুভিং এভারেজ নিয়ে কাজ করবো সুতরাং প্রথমে এদের কিছু আচরন সম্পর্কে অবহিত হওয়া প্রয়োজন। ৬ পিরিয়ড এর মুভিং এভারেজ মার্কেট প্রাইসের মুভমেন্ট এর সাথে সবার আগে মুভ করবে। তারপর মুভ করবে ১৪ পিরিয়ড এর মুভিং এভারেজ এবং সবশেষে মুভ করবে ২৬ পিরিয়ড এর মুভিং এভারেজ।

যখন আপনি দেখতে পাবেন, নীল লাইন, হলদু এবং লাল লাইনকে নিচ থেকে উপরের দিকে ক্রস করে যাচ্ছে তখন বুঝতে হবে এটি আপনাকে একটি Buy Signal প্রদান করছে। নিচের চিত্রটি একটু লক্ষ্য করুন-

চার্টের দিকে একটু ভালো করে লক্ষ্য করুন, নীল লাইন যখন বাকি অন্য দুইটি রঙের লাইনকে নিচ থেকে উপরের দিকে ক্রস করবে তখন আমরা একটি বাই সিগন্যাল পাবো।

আপনারা আগেই জেনেছেন, মার্কেট প্রাইসের সাথে সবার আগে মুভ করবে নীল লাইন, তারপর হলুদ লাইন এবং সবশেষে লাল লাইন। উপরের চিত্রে একটু ভালো করে লক্ষ্য করে দেখুন।

একটি বিষয় মনে রাখবেন Moving Average trade setup এর ক্ষেত্রে,

BUY signal এর সময় সবার উপরে নীল, তারপর হলুদ এবং সবশেষে লাল লাইন থাকবে।

কিভাবে সেল/Sell সিগন্যাল পাবেন?

যেহেতু আমরা তিনটি ভিন্ন মানের মুভিং এভারেজ নিয়ে কাজ করবো সুতরাং প্রথমে এদের কিছু আচরন সম্পর্কে অবহিত হওয়া প্রয়োজন। ৬ পিরিয়ড এর মুভিং এভারেজ মার্কেট প্রাইসের মুভমেন্ট এর সাথে সবার আগে মুভ করবে। তারপর মুভ করবে ১৪ পিরিয়ড এর মুভিং এভারেজ এবং সবশেষে মুভ করবে ২৬ পিরিয়ড এর মুভিং এভারেজ।

যখন আপনি দেখতে পাবেন নীল লাইন, হলদু এবং লাল লাইনকে উপর থেকে নিচের দিকে ক্রস করে যাচ্ছে তখন বুঝতে হবে এটি আপনাকে একটি Sell Signal প্রদান করছে। নিচের চিত্রটি একটু লক্ষ্য করুন-

চার্টের দিকে একটু ভালো করে লক্ষ্য করুন, নীল লাইন যখন বাকি অন্য দুইটি রঙের লাইনকে উপর থেকে নিচের দিকে ক্রস করবে তখন আমরা একটি সেল সিগন্যাল পাবো।

আপনারা আগেই জেনেছেন, মার্কেট প্রাইসের সাথে সবার আগে মুভ করবে নীল লাইন, তারপর হলুদ লাইন এবং সবশেষে লাল লাইন। উপরের চিত্রে একটু ভালো করে লক্ষ্য করে দেখুন।

একটি বিষয় মনে রাখবেন Moving Average trade setup ক্ষেত্রে,

Sell signal এর সময় সবার নিচে নীল, তারপর হলুদ এবং সবশেষে লাল লাইন থাকবে।

কি পেয়ার এবং টাইমফ্রেম এই কৌশল এর জন্য!

কারেন্সি পেয়ার- আমরা সবসময় আপনাদের পরামর্শ দেই শুধুমাত্র মেজর কারেন্সি পেয়ারেই ট্রেড করবেন আর যদি আপনি নতুন ট্রেডার হয়ে থাকেন তাহলে আপনার জন্য শুধুমাত্র মেজর কারেন্সি পেয়ারেই ট্রেড করবেন। এর প্রধান কারণ হচ্ছে, মেজর কারেন্সি পেয়ারগুলোতে সাধারণত স্প্রেড খুবই কম থাকে। সুতরাং আপনি যেকোনো পেয়ারেই ট্রেড করেন না, কম স্প্রেড হলে আপনারই লাভ।

আমরা পরামর্শ দিব, EUR/USD, GBP/USD, USD/CAD, USD/JPY, NZD/USD এই কারেন্সি পেয়ার গুলোতেই আপনি ভালো সিগন্যাল পেতে পারেন।

টাইমফ্রেম নির্বাচন– আপনি যেই টাইমফ্রেমে ট্রেড করতে পছন্দ করেন সেটাতেই আপনি এই কৌশল ব্যাবহার করে ট্রেড করতে পারেন। তবে আমাদের পরামর্শ হচ্ছে, এই কৌশলের জন্য কমপক্ষে 30mnt এর টাইমফ্রেম ব্যাবহার করা উচিৎ

একটি কথা মনে রাখবেন, আপনি ট্রেড করার সময় যত ছোট টাইমফ্রেমে ট্রেড করবেন ট্রেডিং সিগন্যাল ততো বেশী পরিমাণ কঠিন হয়ে যাবে। ছোট সময়ের প্রাইসের মুভমেন্ট পরিবর্তন হতে সময় লাগে না। অন্যদিকে, আপনি যদি একটু বড় টাইমফ্রেমে এই কৌশল ব্যাবহার করেন তাহলে শক্তিশালী এবং ভালো সিগন্যাল পাবেন। একটি কথা মনে রাখবেন, বড় টাইমফ্রেমে গঠিত কোনও ট্রেন্ড হতে যেমন সময় লাগে ঠিক তেমনই ট্রেন্ড থাকেও অনেক সময়।

ঝুঁকি সতর্কতাঃ আমাদের প্রকাশিত যেকোনো কৌশল, রিয়েল ট্রেডে ব্যাবহার করার পূর্বে অবশ্যই আপনি প্র্যাকটিস করে এটির সিগন্যাল সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে এবং বুঝে নিবেন। নতুন কোনও কৌশল নিজের ট্রেডে ব্যাবহার করার আগে অবশ্যই সেটাতে আপনাকে অভ্যস্ত হতে হবে। আবেগ কিংবা তাড়াহুড়ো করে কখনোই কোনও ট্রেডিং কৌশল এর উপর ভিত্তি করে রিয়েল ট্রেড করবেন না। বিষয়টি ঝুঁকিপূর্ণ সুতরাং এই কৌশল সংক্রান্ত কোনও বিষয় জানার থাকলে আমাদের সাথে যোগাযোগ করবেন।

 

আশা করি এই আর্টিকেলটি আপনার ভালো লেগেছে। ফরেক্স মার্কেট সম্পর্কিত যেকোনো তথ্য আমাদের Facebook, Google Plus, Twitter, YouTube এবং Forum থেকে জানুন। গুরুত্বপূর্ণ সব আপডেট পেতে সাবস্ক্রাইব করুন।

- নির্ভরযোগ্য এবং বিশ্বস্ত ব্রোকার 
Instaforex Broker Exness Broker IQ Option Broker WesternFX Broker FBS Broker
Skrill Neteller ETORO Broker ICMarkets Broker Hotforex Broker

কমেন্ট/প্রশ্ন করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here