GBPUSD সাপ্তাহিক এনালাইসিস, ১৩-১৭ এপ্রিল

0
143
GBPUSD Weekly Technical Analysis For 13-17 April, 2020
- ফ্রি কপি ট্রেডিং -

FXBangladesh.com – এই বছরের শুরু থেকেই মেজর কারেন্সি পেয়ার GBP/USD এর কিছুটা নিম্নমুখী প্রবনতা লক্ষ্য করা যায়। প্রাইস এর এই নিম্নমুখী আচরন এর মুল কারন ছিল এই বছরের শুরুতে সংগঠিত হওয়া ব্রেক্সিট চুক্তির বাস্তবায়ন। বিগত জানুয়ারি মাসে, ব্রিটেন সম্পূর্ণরূপে ব্রেক্সিট চুক্তির বাস্তবায়ন সম্পন্ন করে যার মাধ্যমে ইতি টানে বিগত ৪ যুগের সম্পর্কের। এই বছরের জানুয়ারি মাসে, কারেন্সি পেয়ারটির সর্বাধিক প্রাইস লেভেল ছিল, 1.3276 এবং এর পর থেকে এখন পর্যন্ত কারেন্সি পেয়ারটির নিম্নমুখী প্রবনতা লক্ষ্য করা যাচ্ছে। যার মধ্যে বিগত মাস অর্থাৎ মার্চ এর শুরুতে থেকে মধ্য মার্চ পর্যন্ত একসাথে প্রায় সবচেয়ে বড় আকারের দরপতন এর শিকার হয় যা বিগত ১৮ বছরের মধ্যে কারেন্সি পেয়ারটির একসাথে সবচেয়ে বড় আকারের দরপতন। চলুন একটি চার্টে থেকে ঘুরে আসি –

GBPUSD Weekly Technical Analysis For 13-17 April

জানুয়ারি মাসের শুরুতে কারেন্সি পেয়ার এর সর্বাধিক প্রাইস লেভেল ছিল 1.3276 যেখান থেকে এখন পর্যন্ত প্রাইস এর নিম্নমুখী আচরন বিদ্যমান রয়েছে। তবে মার্চ মাসের শুরুতে এসে প্রাইস কিছুটা রিট্রেস নেয়ার চেষ্টা করলেও সেটা ধরে রাখতে পারেনি। যার ফল হিসাবে ১০-১৯ মার্চ এর মধ্যে পাউন্ড এর ডলার এর বিপরীতে সবচেয়ে বড় আকারের দরপতন দেখা যায়। যা ছিল প্রায় ১৮০০ পিপ্স এর মতন। কারন হিসাবে ধরা হচ্ছে বৈশ্বিক মহামারি “Covid 19” এর সংক্রমণ। আমরা সবাই জানি, মহামারি এই ভাইরাস এর সংক্রমণের কারনে আজ বড় বড় দেশগুলো প্রায় দিশেহারা যার মধ্যে রয়েছে ব্রিটেনও।

মার্চ এর শেষ এর দিকে প্রাইস কিছুটা কারেকশন করতে সক্ষম হয় যেখানে সর্বনিম্ন লেভেল 1.1420 থেকে প্রাইস 1.2500 লেভেলকে স্পর্শ করে। আমাদের সর্বশেষ সাপ্তাহিক এনালাইসিস, বলেছিলাম প্রাইস এর পরবর্তী গন্তব্য হতে পারে নিম্নমুখী। প্রাইস এখন পর্যন্ত চার্টে প্রদত্ত ব্রেকআউট জোন এর কাছেন অবস্থান করছে। সুতরাং, এখনই নতুন করে কোনও এন্ট্রি গ্রহন না করে প্রাইস এর আরও কিছূটা মুভমেন্ট এর জন্য অপেক্ষা করাই হবে বুদ্ধিমানের কাজ।

উপরের Daily টাইমফ্রেম এর চার্টে যদি আমরা ফিবনাচি রিট্রেসমেন্ট টুল ব্যবহার করি তাহলে দেখতে পাবো, প্রাই Fibonacci Retracement 50% লেভেল এর (যা বর্তমান রেসিস্টেন্স লেভেল) কাছেই অবস্থান করছে। বিদ্যমান এই মার্কেট অনুসারে প্রাইস এর জন্য 1.2000 এর লেভেল এর উপরে অবস্থান করা অনেকবেশী গুরুত্বপূর্ণ কেননা প্রাইস যদি কোনওভাবে পুনরায় এই লেভেলকে ব্রেক করতে সক্ষম হয় তাহলে ধরে নিতে হবে প্রাইস এর পরবর্তী গন্তব্য স্থল হচ্ছে পূর্বের লো লেভেল কিংবা আরও নিচে।

এনালাইসিস এর শুরুতেই বলেছিলাম, বড় সকল টাইমফ্রেমে এখন পর্যন্ত কারেন্সি পেয়ারটির সেলট্রেন্ড বিদ্যমান। উপরের চার্ট অনুসারে আমরা নীল রঙের যেই লেভেলটিকে নির্দিষ্ট করেছি সেটি শর্টটার্ম রেসিস্টেন্স লেভেল (ব্রেকআউট জোন), প্রাইস যদি কোনওভাবে এই লেভেল ব্রেক করতে পারে তাহলে ধরে নিতে হবে প্রাইস বিদ্যমান ডাউনট্রেন্ড শেষ করে আপট্রেন্ড এর দিকে অগ্রসর হবে। যেখানে পরবর্তী টার্গেট লেভেল হতে পারে 1.3000 এর কাছাকাছি।

অন্যদিকে, যদি প্রাইস এর লেভেল থেকে বাউন্স করা শুরু করে তাহলে ধরে নিতে হবে প্রথম প্রফিটেবল টার্গেট লেভেল হচ্ছে 1.2000 এবং যদি এই লেভেলটিও ব্রেকআউট হয়ে যায় তাহলে পরবর্তী গন্তব্যস্থল হচ্ছে পূর্বের লো অর্থাৎ, 1.1410 কিংবা আরও নিচে।

ট্রেডিং পরামর্শ –

  • Daily টাইমফ্রেম এর জন্য এনালাইসিসটি প্রদান করা হয়েছে।
  • এই মুহূর্তে কোনও BUY/SELL এন্ট্রি গ্রহন করা থেকে বিরত থাকুন।
  • যাদের বিদ্যমান সেল পজিশন রয়েছে সেটিকে ধরে রাখুন।
  • নতুন করে SELL এন্ট্রি গ্রহন করার জন্য, 1.2400 এর নিচে প্রাইস এর অবস্থান বাধ্যতামূলক।
  • সেল এন্ট্রির জন্য পসিবল টার্গেট লেভেল হচ্ছে, প্রথমে 1.2000 এবং পরে 1.1400 এর কাছাকাছি।
  • SELL এন্ট্রির জন্য পসিবল স্টপলস লেভেল হচ্ছে 1.2500 এর উপরে ক্যান্ডেল এর ক্লোজ এবং অবস্থান।

Covid19 সতর্কতা 

ইতিমধ্যেই বিশ্বের প্রায় ১৯৬টি দেশে ছড়িয়ে পড়েছে মহামারি এই ভাইরাস যার কারনে বড় বড় সকল দেশের স্টকমার্কেট এর সুচক কমছে ক্রমান্বয়ে। এমতাবস্থায়, ট্রেডিং এর সময় এবং এন্ট্রি পজিশন কম নেয়ার জন্য অনুরধ করছি আমরা এবং বিদ্যমান কোনও এন্ট্রি স্টপলস ছাড়া না রাখার পরামর্শ প্রদান করছি। কেননা, বিদ্যমান এই পরিস্থিতিতে আমরা যেকোনো ধরনের স্লিপেজ, প্রাইস গ্যাপ, কিংবা বড় ধরনের অস্বাভাবিক মুভমেন্টও দেখতে পারি। সুতরাং, নিজে সতর্ক থাকুন এবং ট্রেডিং এর জন্য পর্যাপ্ত মার্জিন এর ব্যবস্থা করে রাখুন।

ঝুঁকি সতর্কতা 

ফরেক্স ট্রেডিং একটি ঝুঁকিপূর্ণ বিনিয়োগ মাধ্যম। প্রকাশিত এই এনালাইসিস শুধুমাত্র আপনাকে মার্কেটের বিদ্যমান একটি ধারণা প্রদানের জন্য দেয়া হয়েছে। শুধুমাত্র, এই এনালাইসিস এর উপর ভিত্তি করেই কোনও ধরনের ট্রেডে এন্ট্রি গ্রহন করা থেকে বিরত থাকুন। আপনার কোনও ধরনের লস/ক্ষতির দায়ভার FX Bangladesh গ্রহন করবে না। বিস্তারিত জানার জন্য অনুগ্রহ করে আমাদের Risk Warning আর্টিকেলটি পড়ে নিন।


আশা করি আর্টিকেলটি আপনার ভালো লেগেছে। এই আর্টিকেল সম্পর্কিত বিশেষ কোনও প্রশ্ন থাকলে আমাদের জানতে পারেন কিংবা নিচে কমেন্ট করতে পারেন। প্রতিদিনের আপডেট ইমেইল এর মাধ্যমে গ্রহনের জন্য, নিউজলেটার সাবস্ক্রাইব করে নিতে পারেন। এছারাও যুক্ত হতে পারেন আমাদের ফেইসবুক এবং কমিউনিটি পোর্টালে। সেই সাথে রয়েছে আমাদের ভিডিও ট্রেনিং লাইব্রেরী। এছারাও ট্রেড শিখার জন্য জন্য আমাদের রয়েছে অনলাইন ট্রেনিং পোর্টাল।

কমেন্ট/প্রশ্ন করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here